ডিজিটাল মার্কেটিং

কোর্সের নাম

ডিজিটাল মার্কেটিং” বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় একটি স্কীল। এই বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করে ফ্রিল্যান্সিং করে ক্যারিয়ার গঠন করতে পারবেন। তাছাড়া অনলাইন আউটসোর্সিং এর যে সেক্টরেই কাজ করুন না কেন, ডিজিটাল মার্কেটিং জানা না থাকলে সফল হতে পারবেন না। প্রায় সকল কাজেই এই স্কীল আপনার কাজে লাগবে। তাছাড়া আউটসোর্সিং শুরু করতে হলে এই বিষয়টিতে ভাল একটি ধারনা থাকতেই হবে।

কোর্সের সময় ও মেয়াদ

কোর্স ফি ও অন্যান্য

কি কি থাকবে এই কোর্সে?

১। সোশিয়াল মিডিয়া মার্কেটিং। ২। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। ৩। ইমেল মার্কেটিং। ৪। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। ৫। ফ্রিলেন্সিংসহ একটি পূর্ণাঙ্গ আউটসোর্সিং প্যাকেজ। (এছাড়াও বেসিক ইংরেজী ও গ্রাফিক্স এর উপর কিছু ক্লাস থাকবে।)

কবে কোর্স শুরু হবে?

১৪ই মার্চ ২০২৪ তারিখে এই ব্যাচটি শুরু হবে।

কিভাবে ভর্তি হতে পারব?

নিচের ফরমটি পূরণ করে আমাদের কাছে আবেদন করতে হবে। আবেদন অনলাইনে বাচাই করে এই ব্যাচে মাত্র ১২ জন ভর্তি ও ক্লাস করার সুযোগ পাবেন। আবেদনকারীকে অবশ্যই আবেদনটি সঠিক প্রক্রিয়ায় আবেদন করতে হবে। আবেদনকৃত তথ্যের ভিত্তিতে ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে। সরাসরি অফিসে এসে তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন তবে ভর্তি হতে হবে অনলাইনে। শিক্ষার্থীরা নিজে নিজে ফরমটি পূরণ করে আবেদন করতে হবে।

ট্রামস এন্ড কন্ডিশন (নিয়ম নীতিমালা)

১। প্রতিটি ক্লাসে অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক।
২। হোম ওয়ার্ক বাধ্যতামূলকভাবে করতে হবে।
৩। আইডিকার্ড ও নোটবুক নিয়ে ক্লাসে আসতে হবে।
৪। ল্যাপটপ/ট্যাব/মোবাইল নিয়ে ক্লাসে আসতে হবে।
৫। বাড়িতে কম্পিউটার / ল্যাপটপ না থাকলে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন নেই।
৬। নিধারিত সময়ের ১০ মিনিট পূর্বে ক্লাসে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক।
৭। কোন অনিয়ম হলে নির্ধারিত জরিমানা দিতে বাধ্য থাকবেন।

বি.দ্র. : ২০২৪ সালে আমরা “ডিজিটাল মার্কেটিং” এর উপর একটি মাত্র ব্যাচে ভর্তির সুযোগ রয়েছে। এই সুযোগ হাতছাড়া হয়ে গেছে আপনি সত্যিই পিছিয়ে পড়বেন।

প্রশ্ন – আমি যদি অনলাইনে আয় করতে না পারি তবে কি আমাকে কোর্স ফি দিতে হবে?
উত্তর: এই কোর্সটি এমনভাবে সাজানো হয়েছে যে, প্রতিটি শিক্ষার্থীই অনলাইনে আয় করতে পারবেন। তারপরও কেউ আয় করতে ব্যার্থ হলে তার জন্য কোন কোর্স ফি নেই।

প্রশ্ন – প্রতিদিন কেমন সময় দিতে হবে?
উত্তর: আমরা যে হোমওয়ার্ক দেব তা প্রতিদিন আদায় করা হবে। এই কাজগুলো প্যাকটিস করার জন্য প্রতিদিন ১২/১৪ ঘন্টা কাজ করতে হবে। এই সময় না থাকলে আবেদন করার প্রয়োজন নেই।

প্রশ্ন – মোবাইল দিয়ে কি কাজ করতে পারব?
উত্তর: সম্ভব না। বাসায় একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থাকতেই হবে। যাদের কম্পিউটার নেই তারা সাপ্তাহে তিন দিন অফিসে এসে ১২ ঘন্টা করে অফিসের কম্পিউটার ব্যবহার করে কাজ করার সুযোগ পাবেন। এজন্য প্রতি মাসে ল্যাব চার্য ১০০০ টাকা দিতে হবে।

এছাড়াও আপনার আর কোন কিছু জানার থাকলে এই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ম্যাসেজ দিয়ে জেনে নিতে পারবেন। WhatsApp: 8801929766847

প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা : আইটিহল, এসএম মার্কেট, রবিরবাজার, কুলাউড়া, মৌলভীবাজার।
Email: ithallservice@gmail.com

আরও কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *