Foto

‘অন্তঃসত্ত্বা’ জানানোর পরই মুকুট হারালেন এই মডেল!


সুসংবাদ দিলেন, জানালেন মা হতে যাচ্ছেন তিনি। পাশাপাশি এও জানান, খুব শিগগিরই প্রেমিককে বিয়ে করতে যাচ্ছেন। কিন্তু এর মধ্যেই ঘটে গেল দুর্ঘটনা। ‘অন্তঃসত্ত্বা’ ঘোষণার পরপরই কেড়ে নেওয়া হলো তার মুকুট।


নিউজিল্যান্ডের গণমাধ্যম নিউজহাবের খবরে বলা হয়েছে, অন্তঃসত্ত্বা ওই মডেলের নাম জয়েস প্রাডো। ২০১৮ সালে মিস ইউনিভার্স বলিভিয়া খেতাব জিতেছিলেন তিনি।

মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার শর্তই ছিল, বিজয়ীদের মুকুট ততদিনই তাদের মাথায় থাকবে যতদিন তারা বিয়ে কিংবা গর্ভবতী হবেন না। সম্প্রতি এই চুক্তি লঙ্ঘনের জন্যই প্রাডোর মুকুট ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে।

গত শুক্রবার প্রাডোর সংস্থা ফেসবুকে ঘোষণা করেছে, তার মুকুট চুক্তি লঙ্ঘনের সঙ্গে সম্পর্কিত থাকায় তা ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তবে তিনি এজেন্সির মডেল হিসেবেই থাকবেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইন্সটাগ্রামে গত রোববার প্রেমিক রোডরিগো গিমেঞ্জের সঙ্গে তোলা একটি ছবি পোস্ট করেন ২২ বছর বয়সী এই মডেল। ওই পোস্টে নতুন অতিথির আগমনের খবরে কতটা উত্তেজিত সে খবর জানান তিনি।

পোস্টে প্রাডো লিখেছেন, "আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই যে আমি বিশ্বের সবচেয়ে সুখী নারী। আমার জীবন প্রেমে পূর্ণ, কারণ আমার স্বপ্নের মানুষের পাশে আমরা আমাদের জীবনের সবচেয়ে সুন্দর পর্যায়টিতে দিন পার করছি।"

প্রাডো ও রোডরিগো চার মাস ধরে একসঙ্গে আছেন। এই মডেল দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মেইলে খবরে বলা হয়েছে, প্যারাগুয়ের মডেল রোডরিগো গিমেঞ্জের সঙ্গে সম্পর্কের কথা নিজেই স্বীকার করেছেন প্রাডো। তিনি জানান, খুব শিগগিরই তারা বিয়ে করতে যাচ্ছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই মডেল বলেছিলেন, "হ্যাঁ, আমাদের সন্তান আসছে। আমরা আমাদের পরিবারের সবার সমর্থন চাই। আমরা দুজনই খুব খুশি। আমি রোডরিগোকে ভালোবাসি এবং এই খুশির সংবাদ আমাদের আরও কাছাকাছি নিয়ে এসেছে।"


কিছুদিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে প্রাডো জানিয়েছিলেন, তারা বিয়ে করবেন। তবে দিন এখনো ঠিক হয়নি। কিন্তু তারা বিয়ে করবেন এটা ঠিক হয়েছে। তারাও চাইছেন যাতে দুই পরিবারের তরফে তাদের বিয়ে নিয়ে আলোচনা হয়।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা এই সুন্দরী প্রতিযোগিতাকে "অন্যায়" এবং "বোকা" বলে বর্ণনা করেছে। একজন নারী লিখেছেন, "ওসব জিনিসের কারণে কেন সে সুন্দরের রানী হওয়ার যোগ্য নন? সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা আমার কাছে কিছু না, কিন্তু এটা অন্যায়।"

এর আগে ২০১৮ সালে থাইল্যান্ডে বলিভিয়ার হয়ে সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন প্রাডো। কিন্তু সেমি-ফাইনালে গিয়ে ব্যর্থ হন। তবে ২০১৫ সালে "মিস ট্যুরিজম বলিভিয়ার" খেতাব জেতেন প্রাডো।

 

Facebook Comments

" বিনোদন " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ