Foto

আদার রসের ভেষজগুণ


আদা শুধু তরকারির স্বাদ বাড়াতেই কার্যকর ভূমিকা রাখে না, এটির ভেষজগুণও অসাধারণ। আদা ক্যানসার প্রতিরোধ করে থাকে। শুধু তা-ই নয়, ক্যানসার সৃষ্টিকারী সেলগুলো ধ্বংস করতেও কার্যকর ভূমিকা রাখে। আদার জুস নিয়মিত সেবন করলে স্তন ক্যানসারের সেলগুলো আর বৃদ্ধি পায় না। এ ছাড়া এটি মানুষের রক্ত তরল এবং রক্তের চাপ কমাতে সাহায্য করে।


আদার জুসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেতে পারেন সুস্বাদু করার জন্য। আদা বিভিন্ন ধরনের ব্যথা নিরাময়ে সহায়তা করে থাকে। মাইগ্রেনের ব্যথা প্রতিরোধেও আদার রস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। এটি হজমের জন্য সক্রিয় প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে। আদার জুস বা রস বিভিন্ন হজম সংক্রান্ত সমস্যার সমাধানে সাহায্য করে থাকে। এটি পাকস্থলী থেকে খাদ্য প্রক্রিয়া সচল রাখতে সহায়তা করে। আর্থ্রাইটিসের মতো রোগের ক্ষেত্রেও ব্যথানাশক হিসেবে কাজ করে আদার জুস বা রস।

শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করার পাশাপাশি খারাপ কোলেস্টেরল কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে। এ ছাড়া আদার রস বা জুস শরীর শীতল রাখে। আপনি যদি লম্বা এবং উজ্জ্বল চুল পেতে চান, তা হলে প্রতিদিন আদার রস পান করুন। ভালো ফলের জন্য এটি মাথার ত্বকেও প্রয়োগ করতে পারেন। আদা চুলের জন্য ভালো কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে। এ ছাড়া খুশকি কমাতে সাহায্য করে এবং চুল বাড়িয়ে তোলে। আদার জুস ব্রণ কমাতেও সাহায্য করে এবং ভবিষ্যতে ব্রণ ওঠা প্রতিরোধ করে।

 

Facebook Comments

" সুস্বাস্হ্য " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ