Foto

এক-দুইয়ের অনুশীলনে শুরু প্রস্তুতি


সেন্টার উইকেটের কয়েক পাশে লাগানো আছে জাল। কল্পিত ফিল্ডারও বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। ২২ গজে পরীক্ষা ব্যাটসম্যানদের। আলতো হাতে খেলে, ফাঁকা জায়গায় ঠেলে, ত্বরিত নিতে হবে এক-দুই রান। প্রধান কোচ স্টিভ রোডসের সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের সিঙ্গেল-ডাবলস নেওয়ার সেশন দিয়ে শুরু হলো জিম্বাবুয়ে সিরিজের জন্য বাংলাদেশ দলের প্রস্ততি। এমনিতে প্রস্তুতি পর্বের শুরুটা সাধারণত হয় ফিটনেস ট্রেনিং দিয়ে। এবার উল্টো, সোমবার প্রস্তুতির শুরুই হলো স্কিল ট্রেনিং দিয়ে। ফিটনেস পর্ব দুপুরে। স্কিল ট্রেনিংয়ের শুরুটাও একটু ব্যতিক্রম, এক-দুই রান নেওয়ার অনুশীলন।


যথেষ্ট সিঙ্গেল বের করতে না পারা, চাপ কাটাতে বড় শট খেলতে গিয়ে উইকেট দিয়ে আসা, ওয়ানডেতে এসব বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বড় একটি সমস্যা অনেক দিন থেকেই। এমন নয় যে আগে অনুশীলন করা হয়নি এটির। তবে এবার শুরুতেই এটির অনুশীলন বুঝিয়ে দিচ্ছে, দলও এটা নিয়ে ভাবছে বেশ গুরুত্ব দিয়ে।

যাদের নিয়ে কাজ করেছেন রোডস, তাদের মধ্যে ছিলেন ফজলে মাহমুদ রাব্বিও। স্কোয়াডের একমাত্র নতুন মুখ তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেট ও বাংলাদেশ এ দলে এক-দুই নেওয়ায় যথেষ্ট স্কিলের প্রমাণ রেখেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তার দলে আসায় যে স্কিলের আছে বড় ভূমিকা, জানিয়েছেন নির্বাচকেরা। সেই স্কিল আরও শাণিত করার কাজ শুরু হলো জাতীয় দলে প্রথম দিন থেকেই।
পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ফজলে রাব্বি জানালেন, ছোট ছোট ব্যাপারগুলোয় উন্নতিতে নজর দিচ্ছে দল।
“এখানে যে অনুশীলন হয়েছে, আপনারা দেখেছেন। সিঙ্গেল বের করা নিয়ে, স্ট্রাইক রোটেশন নিয়ে কাজ করেছি আমরা। নতুন নতুন কিছু জিনিস আছে, ছোট ছোট ব্যাপার, এসব নিয়েই কাজ করছি। খুব দ্রুত কিছু বদলে ফেলা সম্ভব নয়। তবে ছোট ছোট কিছু, যেগুলোয় পরিবর্তন আনলে খেলা ভালো হয়, সেদিকে আমরা মনোযোগ দিচ্ছি।”

জিম্বাবুয়ে সিরিজের বাংলাদেশ দল ঘোষণার পর থেকেই পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছেন ফজলে রাব্বি। প্রায় ১৫ বছর ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার পর প্রথমবার ডাক পেয়েছেন জাতীয় দলে। বাংলাদেশের বাস্তবতায় এটি বিরল বলেই তাকে নিয়ে কৌতুহল অনেকের।

এ দিন প্রথমবার জাতীয় দলের ড্রেসিং রুমের স্বাদ পেলেন ৩০ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। জাতীয় দলের জার্সিতে অনুশীলন করলেন প্রথমবার। জানালেন, সময়টা দারুণ উপভোগ করছেন তিনি।
“আমার কাছে ওরকম (চাপ) কিছু মনে হচ্ছে না। এই যে ট্রেনিং হলো, আপনাদের সঙ্গে কথা হচ্ছে, সবকিছু উপভোগ করছি।”
“(ড্রেসিং রুম) একদম ভালো সবকিছু। সবাই সবার কাজ নিয়ে খুব চিন্তা করে। কার কোনটা দায়িত্ব, সবাই খুব ভালো জানে। আমি দেখছি, শেখার চেষ্টা করছি। তারা একেকজন কতটা সিরিয়াস, এটা আমাকে খুবই অনুপ্রাণিত করছে।”

স্কোয়াডে জায়গা পাওয়ার পর অভিষেকও হবে কিনা ফজলে রাব্বির, সেটির উত্তর মিলবে সময়ে। দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ খেলে জিম্বাবুয়ে দল ঢাকায় পা রাখবে মঙ্গলবার সকালে। ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু আগামী রোববার থেকে।

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ