Foto

ক্ষমতায় এলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার অব্যাহত থাকবে ঐক্যফ্রন্ট


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করলে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার অব্যাহত রাখা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিএনপি-গণফোরাম-জেএসডি-নাগরিক ঐক্য-কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সমন্বয়ে গঠিত ঐক্যফ্রন্ট।


সোমবার দুপুরে রাজধানীর মতিঝিলের হোটেল পূর্বাণী ইন্টারন্যাশনালে ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে এ প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। ইশতেহার ঘোষণা করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

ইশতেহারে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির ক্ষমতার ভারসাম্য আনা ও টানা দুই মেয়াদের বেশি প্রধানমন্ত্রী নয়-এই দুটিসহ ১৪টি প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।
অন্যান্য প্রতিশ্রুতিগুলো হলো জাতীয় ঐক্য গড়া, মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও নাগরিকদের নিরাপত্তার বিধান, নির্বাচনকালীন সরকারের বিধান তৈরি, বাতিল করা হবে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, প্রথম বছরে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়বে না, প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করা হবে, দেশের সব নাগরিকের জন্য স্বাস্থ্যকার্ড, পুলিশ ও সামরিক বাহিনী ছাড়া চাকরিতে প্রবেশের জন্য কোনো বয়স সীমা থাকবে না, সংখ্যালঘুদের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় গঠন, বিচারবহির্ভুত হত্যাকাণ্ড ও গুম পুরোপুরি বন্ধ করা হবে, পিএসসি-জেএসসি পরীক্ষা বাতিল করা হবে এবং অর্থপাচার রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং পাচারকৃত অর্থ ফেরত আনা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আসম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু ও প্রেসিডিয়াম সদস্য রেজা কিবরিয়া প্রমুখ।

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ