Foto

জলপাই না সরিষার তেল-কোনটি উপকারী?


খাদ্যগ্রহণ আমাদের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ।খাবার খেয়েই আমরা বেঁচে থাকি। জীবনযাপন পদ্ধতি ও রান্না করা স্বাস্থ্যকর খাবার আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।


তেল ছাড়া রান্না প্রায় অসম্ভব। রান্নায় তেল ব্যবহার নিয়ে নানা ধরনের কল্পিত গল্প চালু আছে। কারও কারও ধারণা রান্নায় তেল ব্যবহার করা খারাপ । কারণ এটা মোটা হতে ভূমিকা রাখে। আবার কিছু কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, কোনও কোনও তেল হৃদরোগ তথা গোটা শরীরের জন্য উপকারী। সারা বিশ্বে রান্নার জন্য অলিভ অয়েল বা জলপাই তেল ও সরিষার তেলের ব্যবহার সবচেয়ে বেশি হয়।

হাজার বছর ধরে অলিভ অয়েল বিশ্বের অনেক দেশেই স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ব্যবহৃত হচ্ছে। এতে প্রচুর পরিমাণে ডিয়াটারি ফাইবার থাকায় এটি হৃদরোগের জন্য উপকারী। এটা এমন একটা জাদুকরী তেল যা ওজন কমাতে সাহায্য করে।

অন্যদিকে সরিষার তেলও উপমহাদেশে হাজার বছর ধরে ব্যবহৃত হচ্ছে। এর সঙ্গে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসিও জড়িত। রান্না ছাড়া যেকোন ধরনের ভর্তা কিংবা মুড়ি মাখানোতেও এর জুড়ি নেই।

সরিষার তেলে প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। এই দুটি উপাদানই হৃদরোগের জন্য উপকারী। এছাড়া এতে থাকা মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট সারা শরীরের জন্য উপকারী। সরিষার তেল ভাল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায় এবং খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমায়। রান্নায় সরিষার তেল ব্যবহার করলে তা শুধু খাবারের স্বাদই বাড়ায় না, শরীরের চর্বিও কমায়।

কিছু কিছু গবেষণায় দেখা গেলে, সরিষার তেলে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকায় এটি অলিভ অয়েলের চেয়ে বেশি স্বাস্থ্যকর। এতে ওমেগা থ্রি ও সিক্স থাকায় এটি হৃদরোগের জন্য অন্যতম ’সুপার ফুডে’ হিসেবে পরিচিত।

এছাড়া একাধিক গবেষণা বলছে, অন্যান্য তেলের তুলনায় সরিষার তেল হৃদরোগজনিত জটিলতা কমাতে ও প্রতিরোধ করতে সবচেয়ে ভাল কাজ করে। এছাড়া উচ্চ রক্তচাপ প্রতিরোধেও এটি ভূমিকা রাখে।

Facebook Comments

" সুস্বাস্হ্য " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ