Foto

ধর্ষণের দায়ে দণ্ডের অপেক্ষা অজি ক্রিকেটারের


অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার হেপবার্নের ওপর আনিত ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। তিনি ঘুমন্ত এক নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেন বলে অভিযোগ ওঠে। তা মূলক ধর্ষণ। কিন্তু হেপবার্ন তা অস্বীকার করে আসছিলেন। কিন্তু তথ্য-প্রমাণ মিলিয়ে দেখা গেছে ঘটনা সত্য। এখন দেখার বিষয় তার কি শাস্তি মেলে।


অজি এই ক্রিকেটার ধর্ষণের ঘটনা ঘটান ইংল্যান্ডে। ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে উস্টারশায়ারে আসেন তিনি। সেখানে এসে ক্রিকেট খেলা এক প্রকার বাদই দিয়ে দেন। মেতে ওঠেন অনিয়ন্ত্রিত যৌন জীবনে। নারীর মন জয় করো এবং যত সম্ভব শারীরিক সম্পর্ক করো। এই "খেলায়" ২০১৬ সালে মেতে ওঠেন হেপবার্ন এবং সতীর্থ ক্লার্ক।

ইউরোপের দেশে অবশ্য মন জয় করে শারীরিক সম্পর্কে বিশেষ বাধা নেই। তবে তারা কাজটা পরিকল্পিতভাবে করত। তাদের হোয়াটসআপ গ্রুপ ছিল। সেখানে তা নিয়ে আপত্তিকর ভাষায় নারী সঙ্গতা নিয়ে আলাপ করত। কে কতজনের সঙ্গে মেলামেশা করতে পারল তার হিসেব রাখা হতো।

২০১৭ সালে হেপবার্ন ঘুমন্ত এক নারীর সঙ্গে মেলামেলা করেন। কিন্তু সেই নারীর সম্পর্ক ছিল ক্লার্কের সঙ্গে। রাতে অন্ধকার কক্ষে প্রথমে হেপবার্নকে ওই নারী ক্লার্ক মনে করেন। পরে তার ইংরেজিতে অস্ট্রেলিয়ার টান শুনে বুঝতে পারেন তার সঙ্গী ক্লার্ক নন। পরে আদালতে হেপবার্নের নামে নালিশ করেন ওই নারী। আর বেরিয়ে আসে এসব চাঞ্চল্যকর তথ্য। মামলার বাদী ওই নারীর নাম বা পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।

ক্রিকেট খেলতে আসা হেপবার্নের ক্যারিয়ার অবশ্য সামনে এগোয়নি। উস্টারশায়ারে দুটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে রান করেছেন ৩২। পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলে রান মোটে ২৫। বল হাতে প্রথম শ্রেণি ও টি-২০ ক্রিকেটে ৬টি করে উইকেট আছে তার।

 

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ