Foto

নারীবাদের অপব্যবহার হচ্ছে!


বলিউডে টিকে থাকার জন্য রীতিমতো যুদ্ধ করতে হয়েছে কঙ্গনা রনৌতকে। তাঁর অবস্থা ছিল অনেকটা ‘করো অথবা মরো’-এর মতো। সেই অবস্থা পাড়ি দিয়ে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন তিনি। এই অভিনেত্রী এবার বললেন, ইদানীং ‘নারীবাদ’ শব্দটির অপব্যবহার হচ্ছে।


Hostens.com - A home for your website

সম্প্রতি কঙ্গনা রনৌত বক্তৃতা দেন ইন্ডিয়া টুডের এক সম্মেলনে। রাজনীতি, বাণিজ্য, ক্রীড়া ও বিনোদনের বাঘা বাঘা সব তারকাকে এক ছাদের নিচে জড়ো করেছিল ভারতীয় এই সংবাদমাধ্যম। দুই দিনের এ সম্মেলনের শেষ দিনে বক্তব্য দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। একই মঞ্চে বক্তৃতা দিয়েছেন বলিউড তারকা কঙ্গনা রনৌত।

কঙ্গনা বলেন, ’আমি এমন এক অবস্থায় সিনেমা-জগতে এসেছিলাম, যখন আমার পেছনে ফেরার সুযোগ ছিল না। এখানে কিছু করতে না পারলে, বিকল্প কোনো উপায় ছিল না আমার। ঘুম থেকে উঠে “দাঁড়াও এক মিনিট” বলে একগাদা লোকের মেজাজ খারাপ করে আমি আজ এখানে, ব্যাপারটি কিন্তু সে রকম না। আমার গল্পে আমার কোনো বিকল্প পথ ছিল না। হয়তো অন্য অনেকের ছিল। যাঁরা আমাকে আমার কাজগুলো করতে দিয়েছেন, তাঁরা আমার মতো নিরুপায় ছিলেন না। যদিও অবস্থাটি আমার বরং ভালোই লাগত।’

কঙ্গনার চলচ্চিত্র নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। ২০১৭ সালের ছবি ’সিমরান’ নিয়ে চিত্রনাট্যকারের সঙ্গে সংঘাত বেধে গিয়েছিল তাঁর। অভিযোগ উঠেছিল পর্দায় চিত্রনাট্যকার অপূর্ব আশরানির নাম ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। শেষ ছবি ’মনিকর্নিকা’ নিয়েও বিতর্কের শেষ নেই। এত কিছুর পরও কঙ্গনা মনে করেন, তাঁর সাফল্যের কৃতিত্ব তাঁর নিজের। কেননা বড় কোনো প্রযোজনা সংস্থা বা বড় তারকার সঙ্গে কাজ করা হয়নি তাঁর। তিনি বলেন, ’আমরা সবাই জানি, বলিউড এবং এই সমাজ সাম্প্রদায়িক। পুরো ব্যবস্থাটি কতিপয় ব্যক্তির হয়ে কাজ করে। এই ব্যবস্থাকে চ্যালেঞ্জ করলেই আপনাকে বৈষম্যের শিকার হতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ’যখন আমি “গ্যাংস্টার”-এর মতো একটা ছবির মাধ্যমে এই ইন্ডাস্ট্রিতে এলাম, এশিয়ার ভেতর সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলাম। তারপর আমার হাতে আর কোনো কাজ ছিল না। তাঁরা বুঝতেই পারছিল না এই ধরনের একজন অভিনেত্রীকে দিয়ে কী কাজ করাবেন!’

শক্তিমানেরা বারবার তাঁর কণ্ঠ রুদ্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করলেও তিনি যুদ্ধ করে গেছেন। এ প্রসঙ্গে কঙ্গনা বলেন, ’আপনি যখন প্রশ্ন তুলতেই থাকবেন, তাঁরা আপনার মুখ বন্ধ করে দেবে। অথচ ব্যক্তি হিসেবে আপনার সেসব প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার অধিকার আছে।’ নারীর ক্ষমতায়ন প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে দুঃখ করে কঙ্গনা বলেন, ইন্ডাস্ট্রির অনেক নারী শিল্পী আছেন, যাঁরা মনেই করেন না যে সহযোগী পুরুষ শিল্পীর সমান সম্মানী তিনি পেতে পারেন। তিনি বলেন, ’আপনি নিজেকে যতটা ক্ষমতাবান ভাববেন, আপনি আসলে ততটাই ক্ষমতাবান। আপনি যদি মনে করেন, আপনি পুরুষের সমান নন, তাহলে সেটা আপনার ব্যাপার। কেউ সেটাকে সমান করতে পারবে না।’

কঙ্গনা মনে করেন, এই সময়ের সবচেয়ে অপব্যবহার হওয়া একটি শব্দ। তিনি বলেছেন, ’আমি বহু মানুষকে চিনি যারা সম-অধিকার মানেই বোঝে না, অথচ তাঁরা সম-অধিকার এবং নারীবাদের ধ্বজাধারী। কাগুজে নারীবাদের সংজ্ঞায় না গিয়ে আমি নিজেই নারীবাদের সংজ্ঞা তৈরি করতে চাই। ’নারীবাদ’ শব্দটি যদি নারীর সঙ্গেই সম্পৃক্ত হয়, তাহলে সমতা শব্দটির সঙ্গে লিঙ্গের সম্পর্ক থাকবে কেন। সমতা হবে জীবনের ক্ষেত্রে। আমার মনে হয় সংজ্ঞা ঠিক করার সময় হয়ে গেছে।’

ইন্ডিয়া টুডের ওই সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন কঙ্গনা রনৌত। মোদিকে তিনি বলেছেন, ’আপনার আবারও ক্ষমতায় আসা উচিত, কারণ আপনিই এর যোগ্য।’ গত বছরও এক অনুষ্ঠানে মোদিকে নিয়ে কঙ্গনা বলেছিলেন, ’তিনিই সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী। মা-বাবার জন্য আজ তিনি এখানে আসেননি। তাঁর এই স্থান কেড়ে নেওয়া যাবে না। তিনি এই পদের যোগ্য আর পরিশ্রমের মাধ্যমেই তিনি এটা অর্জন করেছেন। তাঁর স্বচ্ছতা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

Facebook Comments

" বিনোদন " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ

Web Hosting and Linux/Windows VPS in USA, UK and Germany

Visitor Today : 561

Unique Visitor : 76329
Total PageView : 94382