Foto

প্রতিদিনের চুলের সাজ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়


সময়–পরিস্থিতি বুঝে ভিন্ন ধাঁচে চুল বেঁধে নিতে পারলে চলতি সময়কে ছোঁয়া যায়, তেমনি স্টাইল বা ফ্যাশনও হয় ষোলো আনা। লম্বা চুলে কেমন সাজ মানাবে, বুঝতে পারেন না অনেকেই। রূপবিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন দেখালেন তেমনই কয়েকটি চুলের সাজ।


সিঁথির দুই পাশে করা ফ্রেঞ্চ বেণির এলোমেলো কোঁকড়া চুলগুলো চূড়া করে নিয়ে পেঁচিয়ে খোঁপার আকারে এনে পিন দিয়ে আটকে নিলেই হবে। চুলের এই সাজের সঙ্গে পশ্চিমা যেকোনো গাঢ় রঙের পোশাক মানিয়ে যাবে।

প্রথমে চুলের মাঝ–বরাবর সিঁথি টেনে চুলগুলো হালকা কোঁকড়া করে নিন। সিঁথির দুপাশে একটু এলোমেলোভাবে দুটো ফ্রেঞ্চ বেণি করে একপাশে নিয়ে আসুন। রঙিন ফিতা দিয়ে বেঁধে নিতে পারেন। তারপর বাঁধা চুলগুলো দুই ভাগে ভাগ করে একভাগ ছাড়া রেখে অন্য ভাগে আরেকটি ফ্রেঞ্চ বেণি করে ছেড়ে দিলেই সম্পূর্ণ হবে চুলের সাজ। চুলের এই সাজ কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বা কোনো উৎসব আয়োজনে পশ্চিমা ধাঁচের পোশাক, সালোয়ার–কামিজ বা শাড়িতে বেশ মানিয়ে যাবে।

চুলের মাঝখানে সিঁথি কাটুন। দুই পাশে এলোমেলো ফ্রেঞ্চ বেণি করে চুলগুলো পেছনের দিকটায় এনে রঙিন কাপড়ের ব্যান্ড বেঁধে নিন। চুলগুলো পিঠময় ছাড়া থাকবে।

হালকা কোঁকড়ানো চুলের মাঝখানে সিঁথি এবং দুই পাশে ফ্রেঞ্চ বেণি রেখে সব চুল মাথার পেছন দিকে এনে নিচের দিকের চুল ছাড়া রেখে দিন। ওপরের অংশের চুলগুলো ফিতার সাহায্যে ঝুঁটি বেঁধে নিতে হবে। পশ্চিমা ধাঁচের পোশাকের সঙ্গে কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া মেয়েদের ভালো লাগবে এই চুলের সাজে।

Facebook Comments

" লাইফ স্টাইল " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ