Foto

প্রতিদিন কতটা সময় পরচর্চা করছেন?


পরনিন্দাকে নেতিবাচক ধরা হলেও এটা মানুষকে আলাদা বিনোদন দেয়। অফিসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সহকর্মী, শ্বশুড়বাড়ির সদস্য কিংবা পরিচিতজনের নিন্দা করে অনেকেই তার হতাশা বের করার চেষ্টা করেন। এ কারণে পরচর্চা করা সবসময় খারাপ বলা যায় না-অন্তত নতুন এক গবেষণা তাই বলছে।


যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার একদল গবেষক বলছেন, প্রত্যেকেই দিনের একটা নির্দিষ্ট সময় পরচর্চা করে কাটায়। কেউ কম করেন , কেউ বা আবার বেশি। তবে প্রায় প্রত্যেকেরই অপ্রীতিকর এই অভ্যাসটি রয়েছে।

একজনের অনুপস্থিতিতে যখন তার সম্পর্কে কোনও আলোচনা করা হয় সেটাই ’পরচর্চা’ । এটা ইতিবাচক, নেতিবাচক বা নিরপেক্ষ- তিনরকমই হতে পারে।

গবেষণায় দেখা গেছে, বয়স্কদের তুলনায় তরুণরা বেশি পরচর্চা করে। গবেষণায় আরও দেখা গেছে, প্রত্যেকে দিনে গড়ে ৫২ মিনিট করে পরচর্চা করে কাটায়।

মানুষ কোন বিষয় নিয়ে বেশি চর্চা করে তা নিয়েও গবেষকরা পরীক্ষা চালিয়েছেন। এজন্য গবেষকরা ১৮ থেকে ৫৮ বছর বয়সী ৪৬৭ জন নারী-পুরুষকে বেছে নিয়েছিলেন। তাদের ওপর করা সমীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়-

১. পরচর্চার একটা অংশ জুড়ে থাকে পরিচিত তারকাদের নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা।

২. অন্তর্মুখী স্বভারের চেয়ে যারা বহির্মুখী ধরণের তারাই পরচর্চা বেশি করে।

৩. ধনী-দরিদ্র সবাই পরচর্চা করে।

৪. যদিও পুরুষের তুলনায় নারীরা বেশি পরচর্চা করে, তবে বেশিরভাগই থাকে অভিজ্ঞতা বা তথ্য শেয়ারের।

৫. কথোপকথনের শতকরা ১৪ ভাগ কথাই থাকে পরচর্চা।

Facebook Comments

" লাইফ স্টাইল " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ