Foto

বাঁচা-মরার লড়াই আজ


বিশ্বকাপ শুরুর আগে থেকেই বাংলাদেশকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ছিলেন মাশরাফি। বাংলাদেশ যদি চ্যাম্পিয়নও হয়, তবু অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না বলে তখন জোর গলায় বলেছিলেন তিনি। সেই বিশ্বাসে এখনো অটল রয়েছেন অধিনায়ক। ভারতের সঙ্গে আজ বাঁচা-মরার লড়াইয়ে নামছে বাংলাদেশ। গতকাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনেও মাশরাফি জোর দিয়ে বললেন, বাংলাদেশ এখনো এই টুর্নামেন্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছে।


ভারত ম্যাচ সামনে রেখে দল বাড়তি চাপের মধ্যে রয়েছে কি না, জানতে চাইলে অধিনায়ক বলেন, ক্রিকেট একটা মনস্তাত্ত্বিক খেলা। সমর্থকরা চাপে থাকতে পারেন। কারণ তারা সব সময় দলের জয় দেখতে চান। মানসিক চাপে থাকা তাদেরই মানায়। কিন্তু যারা মাঠে খেলবে তাদের চাপের মধ্যে থাকা ঠিক নয়। তাদের সব ধরনের চাপ সামাল দিয়েই খেলতে হবে।আজ এজবাস্টনে ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ৩টা থেকে শুরু হবে এই ম্যাচ। গতকাল ম্যাচের আগে পুরো সংবাদ সম্মেলনেই মাশরাফিকে দেখা গেল খোশমেজাজে। অনেক প্রশ্নের সরস উত্তরও দিলেন তিনি। আফগানিস্তান ম্যাচের পর টানা আট দিনের বিরতি কি দলের জন্য ভালো হলো? মাশরাফি বলেন, সত্যি কথা বলতে কি, ছুটিটা আরো ভালো লাগত যদি বাংলাদেশের ঝুলিতে এই মুহূর্তে ৯ পয়েন্ট থাকত। আমাদের পয়েন্ট এখন ৭। খুবই আঁটোসাঁটো অবস্থা। এই অবস্থায় নির্ভার থাকা যায় না। গত কয়েক দিন আমরা হয়তো অনুশীলন করিনি। কিন্তু মাথার মধ্যে ঠিকই খেলা হয়েছে।

বিশ্বকাপে সাকিবের পারফরম্যান্সের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে মাশরাফি বলেন, একজনের পক্ষে যতটা ভালো করা সম্ভব সাকিব ততটাই করছে। ব্যাটিং, বোলিং সব দিকেই সে অসামান্য অবদান রাখছে দলের জন্য। আমার বিবেচনায় শুধু বাংলাদেশ টিমের জন্য নয়, এই বিশ্বকাপেও সেরা পারফরমার সাকিবই। সামনের দুটি ম্যাচেও সাকিব ভালো করবে বলে আমি আশাবাদী।

ভারতের কাছে হারলে সেমিফাইনালে খেলার আর কোনো সম্ভাবনা থাকবে না বাংলাদেশের। জিতলেও অন্যদের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। ইংল্যান্ডের সঙ্গে ভারত জিতলে বাংলাদেশের জন্য ভালো হতো। তবে ভারতের পরাজয় ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন মাশরাফি। বলেন, আমরা যদি ভালো খেলে ভারতের সঙ্গে জিততে পারি সেটা হবে আরো আনন্দের। আমি মনে করি, টিমের জন্য কঠিন অপশনটাই ভালো। শুধু বিশ্বকাপ নয়, সামনের দিকে এগোনোর জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ থাকাই ভালো।

ভারতের টপ অর্ডার ব্যাটিং লাইন আপে যত দ্রুত ফাটল ধরানো যায়, ততই বাংলাদেশের সম্ভাবনা বাড়তে থাকবে বলে মনে করেন অধিনায়ক। বলেন, ভারতের টপ অর্ডার খুবই শক্তিশালী। ভারত প্রতিপক্ষের রান চেজ করে জিততে পছন্দ করে। হয়তো ইংল্যান্ডের সঙ্গে তারা সেটা পারেনি। টপ অর্ডারের যদি ফাটল ধরাতে পারি, সেটা আমাদের জন্য খুবই সহায়ক হবে।

আজকের ম্যাচে দুই দলেই আসতে পারে কিছু পরিবর্তন। ভারতের একাদশে না থাকতে পারেন যুজুবেন্দ্র চাহাল এবং কেদার যাদব। বাংলাদেশের একাদশে সংশয়ে আছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলের অন্যতম ব্যাটিং খুঁটি রিয়াদের ইনজুরি প্রসঙ্গে অধিনায়ক বলেন, ওর বিষয়ে এখনো ফাইনাল কল দেননি ফিজিও। কাল সকাল পর্যন্ত সময় আছে। দেখা যাক কী হয়।

Facebook Comments

" ওয়ার্ল্ড কাপ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ