Foto

ব্যাংকের এত টাকা কোথায় গেল: এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি প্রশ্ন


ব্যাংকের তারল্য সংকট নিয়ে প্রশ্ন তুলে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেছেন, দুয়েক বছর আগেও শুনেছি, ব্যাংকে টাকার অভাব নেই। ব্যবসায়ীরা চাইলেই ঋণ পাবেন। এখন টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। ব্যাংকের এত টাকা কোথায় গেল? এটা বের করা দরকার।


Hostens.com - A home for your website

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে শুল্ক ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন বিষয়ক কর্মপরিকল্পনার প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ও ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) যৌথভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান।

ব্যাংক ঋণের উচ্চ সুদ ও ব্যবসার পরিবেশ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ’প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরও ৯ শতাংশ সুদে ব্যাংক ঋণ পাওয়া যাচ্ছে না। উদ্যোক্তাদের ১২-১৪ শতাংশ সুদে ঋণ নিতে হচ্ছে। এতে শিল্প স্থাপন খরচ বৃদ্ধি পাচ্ছে। সহজে ব্যবসা করার সূচকেও পিছিয়ে যাচ্ছি। আগে ছিলাম ১৭৫তম, এখন হয়েছি ১৭৭তম।’ অবশ্য প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মশিউর রহমান ব্যাংকে তারল্য সংকটের ব্যাপারে দ্বি-মত পোষণ করে বলেন, ’সমস্যা অন্যখানে’।

স্প্রেডের (ঋণ ও আমানতের সুদের হারের পার্থক্য) বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ’সরকার প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে টাকা ছেড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করতে পারে। কিন্তু তাতে মূল্যস্ফীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। এটি জটিল বিষয়।’

ড. মশিউর রহমান বলেন, বন্ড সুবিধায় অনেকে পণ্য এনে কারখানায় ব্যবহার না করে খোলাবাজারে বিক্রি করে দেন। এতে বাজারের ভারসাম্য নষ্ট হয়। এ অনিয়মরোধে সরকার কঠোর অবস্থানে আছে। আমদানি পণ্যের শুল্কহারের পার্থক্য থাকায় এমন হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

বন্দর ও শুল্ক ব্যবস্থাপনার অসঙ্গতি তুলে ধরে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ’এখনও কাস্টমসে স্ক্যানার বসানো যায়নি। বিমানবন্দরে অব্যবস্থাপনাও রয়েছে। ঢাকা এয়ারপোর্টের সক্ষমতার অভাবে কলকাতা বিমানবন্দরের মাধ্যমে তৈরি পোশাক পাঠাতে হচ্ছে। অন্য দেশ থেকে বিমানে পণ্য পাঠাতে প্রতি কেজি ৭ সেন্ট করে খরচ হলেও আমাদের হচ্ছে দ্বিগুণ।’

সভাপতির বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ’শুল্কায়নসহ রাজস্ব ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন ও প্রযুক্তিতে সক্ষমতা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের দক্ষতা অর্জন করতে হবে। কারা কাজ করছে বা করছে না- আর কারা কোনদিকে পোস্টিং নেয়ার চেষ্টা করছেন, সেটি খেয়াল করব।’ তিনি আরও বলেন, ’নতুন ভ্যাট আইনে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত বার্ষিক টার্নওভার (বিক্রি) ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত। এর পরবর্তী তিন কোটি টাকা পর্যন্ত বিক্রিতে ৪ শতাংশ হারে টার্নওভার ট্যাক্স আরোপিত আছে। নতুন আইন বাস্তবায়নের পর অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তিন কোটি টাকার নিচে টার্নওভারে চলে আসতে চাইছে। এটি হতে পারে না।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন এনবিআরের সদস্য খন্দকার মোহাম্মদ আমিনুর রহমান, বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র অর্থনীতিবিদ ড. মাশরুর রিয়াজ, ডিএফআইডি’র প্রতিনিধি মাশফিক ইবনে আকবর প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে কাস্টমস আধুনিকায়নে কৌশলগত কর্মপরিকল্পনা বই আকারে প্রকাশ করা হয়। এতে ২০১৯ সাল থেকে ২০২২ সালে কাস্টমস আধুনিকায়নে কী কী উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে তা উল্লেখ রয়েছে। ইতিমধ্যে আন্তঃসীমান্ত বাণিজ্য প্রক্রিয়ার সহজীকরণ ও আধুনিকীকরণে কয়েকটি সংস্কার উদ্যোগ বাস্তবায়নে কাজ করছে এনবিআর।

এর অংশ হিসেবে নতুন কাস্টমস অ্যাক্ট প্রণয়ন, অনুমোদিত অর্থনৈতিক অপারেটর (এইও) প্রোগ্রাম চালু, ন্যাশনাল সিঙ্গেল উইন্ডো বাস্তবায়ন, কাস্টমসের জাতীয় অনুসন্ধান পয়েন্ট (এনইপি) প্রতিষ্ঠা, অগ্রিম রুলিং (এআর) সিস্টেম উন্নয়ন এবং ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা (আরএম) অধিদফতর গঠনে কাজ চলছে।

Facebook Comments

" বিশ্ব অর্থনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ

Web Hosting and Linux/Windows VPS in USA, UK and Germany

Visitor Today : 15

Unique Visitor : 77113
Total PageView : 94962