Foto

মসজিদের দেয়ালে রক্তমাখা হাতের ছাপ


সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় মা ও ছেলেকে জবাই করে হত্যার ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে উল্লাপাড়া মডেল থানায় মামলা (নম্বর ২৫) দায়ের করা হয়েছে। নিহত আলতাফ হোসেন বকুলের স্ত্রী শামীম আরা বাদি হয়ে এ মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাতদের আসামি করা হয়েছে।


এদিকে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ কররে পুলিশ। তবে তদন্তের স্বার্থে এই মুহূর্তে পুলিশ আটকদের পরিচয় জানাতে রাজি হয়নি। এছাড়াও নিহত বকুলের বাড়ির পাশের মসজিদের দেয়ালে পাওয়া রক্তমাখা হাতের ছাপ নিয়ে সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করেছে।

এর আগে গত বুধবার রাতে উপজেলার দূর্গানগর ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আলতাফ হোসেন বকুলের বাড়ির শোবার ঘরে দুস্কৃতকারীরা বকুল ও তার বৃদ্ধ মা রিজিয়া খাতুনকে গলা কেটে এবং হাত-পায়ের রগ কেটে হত্যা করে। পরে পুলিশ বৃহস্পতিবার নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লাপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মোস্তফা জানান, প্রাথমিকভাবে এই খুনের নেপথ্যে স্থানীয় বালু মহাল, পারিবারিক বিরোধ, নিজের জায়গায় পারিবারিক মসজিদ নির্মাণ, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কিছু লোকজনের সঙ্গে বকুলের বিরোধের কিছু ক্লু পেয়েছে পুলিশ। আর এসব বিষয় নিয়ে তদন্ত করছেন তারা।

গোলাম মোস্তফা জানান, মসজিদের দেয়ালে রক্তাক্ত হাতের ছাপের বিষয়ে সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ইতোমধ্যেই পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করেছে।

তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের সময় বকুলের মা রিজিয়া খাতুন (৮৫) ঘাতকদের চিনে ফেলেন। তাই খুনের স্বাক্ষী না রাখতে এই বৃদ্ধাকে খুন করা হয়েছে বলে মামলার বাদি শামীম আরা তার বয়ানে উল্লেখ করেছেন।

শিগগিরই এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পরিদর্শক তদন্ত।

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ