Foto

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কোন আলোচনা নয় : ইরান


উপসাগরীয় অঞ্চলে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় ইরান বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা প্রত্যাখান করেছে। সেইসঙ্গে বলেছে, তেহরানের পক্ষ থেকে আসন্ন হামলা পরিকল্পনার অজুহাত তুলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এ অঞ্চলে ওয়াশিংটন সামরিক শক্তি বাড়ানোর পরও ইরান ‘সর্বোচ্চ সংযম’ দেখাচ্ছে।


এদিকে মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, ইরান তাদের ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন ছোট নৌযানে ক্ষেপণাস্ত্র তুলেছে এমন ছবি প্রদর্শনের প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র উপসাগরীয় অঞ্চলে একটি রণতরী ও বি-৫২ যুদ্ধবিমান মোতায়েন করে।

কৌশলগত দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জলপথগুলোর অন্যতম হচ্ছে উপসাগর।

জাপানের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা জন্য টোকিও সফরে যাওয়া ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাভেদ জারিফ যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমবর্ধমান উত্তেজনাকে অগ্রহণযোগ্য হিসেবে অভিহিত করেছেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আলোচনার কোন সম্ভাবনা নেই। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কেন অতিবিশ্বাসী হচ্ছেন আমি তা জানি না।

জারিফ বলেন, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি বিষয়ে করা আন্তর্জাতিক চুক্তি থেকে গত বছর একতরফাভাবে যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া সত্ত্বেও আমরা সর্বোচ্চ সংযম দেখাচ্ছি।

বুধবার ট্রাম্প ইঙ্গিত দেন যে ইরান শিগগিরই আলোচনা করতে আগ্রহী হবে। ইরাকে মার্কিন দূতাবাস ও কনস্যুলেট থেকে জরুরি প্রয়োজন নেই এমন স্টাফদের দেশে ফিরে আসতে পররাষ্ট্র দপ্তর নির্দেশ জারি করার পর ট্রাম্প এমন ইঙ্গিত দিলেন।

প্রেসিডেন্ট এক টুইটার বার্তায় বলেন, আমি নিশ্চিত যে ইরান শিগগিরই আলোচনায় বসতে চাইবে।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ