Foto

২১ রানে শেষ ৫ উইকেট হারিয়ে পার্থে হারল ভারত


অ্যাডিলেডে হারের পর পার্থে ঘুরে দাঁড়াল অস্ট্রেলিয়া। ভারতকে ১৪৬ রানে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল তারা। টেস্টে দশ মাস পর এটি অস্ট্রেলিয়ার প্রথম জয়। মার্চের বল টেম্পারিং-কাণ্ডের পর প্রথম।


পার্থ টেস্টে জয়ের জন্য ২৮৭ রানের লক্ষ্য ছিল ভারতের সামনে। কাল চতুর্থ দিন শেষে অস্ট্রেলিয়া মাত্র ১১২ রানেই ৫ উইকেট তুলে নিয়েছিল। কিন্তু আজ শেষ দিনে সামান্য লড়াইটাও চালাতে পারল না বিরাট কোহলির দল। মাত্র ২১ রানে শেষ ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রানের বড় হারই সঙ্গী হয়েছে তাদের। গত মার্চে বল টেম্পারিং-কাণ্ডের পর এটিই অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টেস্ট জয়। গত মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়া তাদের সর্বশেষ টেস্ট জয়টি পেয়েছিল।
১৪০ রানে গুটিয়ে গেছে ভারত। অফ স্পিনার নাথান লায়ন ৩৯ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন দ্বিতীয় ইনিংসে। দুই ইনিংস মিলে তিনি তুলে নিয়েছেন ৮ উইকেট। তিনিই ১০ মাস আর সাত টেস্ট পর অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত এই জয়ের নায়ক।
বল টেম্পারিং-কাণ্ডের পর অধিনায়কত্ব হারিয়েছিলেন স্টিভ স্মিথ। অনেকটা আকস্মিকভাবেই অস্ট্রেলীয় দলের অধিনায়কত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল টিম পেইনের হাতে। পার্থে তিনি পেলেন তাঁর প্রথম সাফল্য। সেটিও পাঁচ টেস্ট পর। এটি কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের অধীনেও অস্ট্রেলিয়ার প্রথম টেস্টজয়। মজার ব্যাপার হচ্ছে, ল্যাঙ্গার কোচ হিসেবে প্রথম সাফল্যটি পেলেন তাঁর নিজ জন্মশহর পার্থেই।
ভারতের ভরসা হয়ে ছিলেন দুই তরুণ ব্যাটসম্যান হনুমা বিহারি ও ঋষভ পন্ত। কিন্তু বিহারি তাঁর আগের দিনের সংগ্রহের সঙ্গে মাত্র ৪ রান যোগ করেই ফেরেন মিচেল স্টার্কের বলে। তিনি মিডউইকেটে ক্যাচ দেন মার্কাস হ্যারিসকে। স্টার্ক ৪৬ রানে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে লায়নের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার পার্থ টেস্ট জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন।
বিহারির বিদায়ের পর মোটামুটি হারই দেখছিল ভারতীয় দল। পন্ত এ সময় একটু মেরে খেলার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু তিনি ব্যক্তিগত ৩০ রানে লায়নের বলে ওই মিডউইকেটেই ক্যাচ দেন পিটার হ্যান্ডসকম্বকে। নিজের বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে ধরা হ্যান্ডসকম্বের এই ক্যাচটি ছিল দুর্দান্ত। এই হ্যান্ডসকম্বই ভারতের প্রথম ইনিংসে স্লিপে দাঁড়িয়ে বিরাট কোহলির ক্যাচ নিয়েছিলেন।
পন্ত যখন বিদায় নেন, তখন জয়ের থেকে আরও ১৫০ রান দূরে ভারত। কিন্তু এ সময় লড়াই দূরের কথা উমেশ যাদব, ইশান্ত শর্মা ও জাসপ্রীত বুমরাহ আউট হয়ে যান মাত্র ৪ রান যোগ করেই। যাদব অবশ্য ২৩ বল টিকতে পেরেছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রিটার্ন ক্যাচ দেন স্টার্ককে।
ইশান্ত অবশ্য ধরে খেলার কোনো চেষ্টাই করেননি। তিনি মেরে খেলতে গিয়েই উইকেটের পেছনে প্যাট কামিন্সের বলে পেইনকে ক্যাচ দেন। কামিন্স ২৫ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। তিনি অবশ্য রানের খাতা খুলতে পারেননি। বুমরা কামিন্সের বলে তাঁর হাতেই ক্যাচ দিয়ে ফিরলে ১৪৬ রানের বড় হারই সঙ্গী হয় ভারতের।
আগামী ২৬ ডিসেম্বর ’বক্সিং ডে’তে মেলবোর্নে শুরু হবে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে জয় পাওয়া ভারত পার্থের ধাক্কা সামলে মেলবোর্নে কীভাবে ঘুরে দাঁড়ায়, দেখার বিষয় সেটিই।

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ